আগুনে পুড়ে শ্রমিক হত্যার দায় রাষ্ট্র ও সরকার এড়াতে পারে না : গণসংহতি আন্দোলন

 

আজ ১০ জুলাই ২০২১ ইং গণসংহতি আন্দোলন চট্টগ্রাম জেলা শাখা সমন্বয়কারী হাসান মারুফ রুমী এবং সদস্য সচিব ফরহাদ জামান জনি এক যুক্ত বিবৃতিতে নারায়নগন্জের রুপগঞ্জে অবস্থিত হাশেম ফুড এন্ড বেভারেজ কারখানায় আগুন লেগে ৫২ জনের অধিক শ্রমিক নিহত ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন , আগুনে পুড়ে শ্রমিক হত্যার দায় রাষ্ট্র ও সরকার কোনোভাবেই এড়াতে পারে না । নেতৃবৃন্দ বলেন ,অগ্নিকান্ডে এতগুলো প্রাণ ঝড়ে যাওয়ার পর জানা গেলো এই কারখানার নকশা ও কারখানার অনুমোদন ক্রটিপূর্ণ ছিলো ।এই ধরণের ক্রুটি চিহ্নিত করা এবং শ্রমিক কর্মচারীদের নিরাপদ কর্মপরিবেশ নিশ্চিত করার জন্য সরকারের একাধিক মন্ত্রনালয় ও তার অধীন নানা সংস্থা ও লোকবল রয়েছে ।দূর্ঘটনা ঘটনার আগেই তা চিহ্নিত করা এবং প্রতিকারের জন্য তাদের সুনির্দিষ্ট দায়িত্বও আছে : কিন্তু তাদের কাজের জবাবদিহিতা নেই ; নেই দায়িত্ব অবহেলার জন্য শাস্তির ব্যবস্থা ।এই ধরণের কাঠামোগত শ্রমিক হত্যার আজ পর্যন্ত কোন দোষীদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনা এবং আইন অনুয়াযী শাস্তি কার্য়কর করার কোন নজির বাংলাদেশের ইতিহাসে নাই । ফলে এই ধরণের ঘটনা বার বার ঘটেই চলছে ।

নেতৃবৃন্দ বিবৃতিতে বলেন , একটা অগণতান্ত্রিক ও জবাবদিহিতাহীন সরকার যে মানুষের জন্য জান -মাল রক্ষা করতে সক্ষম না তা নিরাপরাধ ৫২ জন শ্রমিক আগুনে ভস্মিভূত হয়ে নির্মমভাবে তা প্রমাণ করলো ।এই করোনা মহামারিতে এমনিতে মানুষের জীবন রক্ষা করা যাচ্ছে না । তার ওপর অবহেলা ও জবাবদিহিতা না থাকায় আরো নিরিহ ৫২ এর অধিক মানুষকে প্রাণ দিতে হলো । অবিলম্বে কারখানার কর্তৃপক্ষ এবং সরকারের তদরকি সংস্থার দায়িত্বপ্রাপ্তদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনার দাবি জানান নেতৃবৃন্দ ।

 

Sharing is caring!

Related Articles

Back to top button