আগামী কয়েকদিন বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা

প্রতিবারই চৈত্র থেকে অগ্রিম বৃষ্টিপাত শুরু হলেও এইবার টানা দুই মাস গরম আর বৃষ্টিহীন ছিল প্রকৃতি। এখন আমরা বৃষ্টির দেখা পাচ্ছি , আবহাওয়া অধিদপ্তর থেকে পূর্বাভাস দিয়েছে দেশের বিভিন্ন স্থানে শুরু হওয়া বৃষ্টি আগামী কয়েক দিন টানা চলবে ।

দেশের উজানে ভারতীয় অংশে বৃষ্টি বেশি হবে, আর উজানের ওই টানা ভারী বৃষ্টি ঢল হয়ে ভাটির দিকে আগামী বুধবার থেকে আসতে শুরু করবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এতে দেশের সিলেট, ময়মনসিংহসহ হাওর এলাকার বেশ কয়েকটি নদীর পানি বেড়ে হঠাৎ বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হতে পারে। উত্তরাঞ্চলের নদ-নদীগুলোর মধ্যে তিস্তা, ধরলাসহ কয়েকটি নদ-নদীর পানি বাড়তে পারে।

তবে অন্যান্য বছরের তুলনায় এবারের বন্যা বিপদ না হয়ে আশীর্বাদ হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। যেহেতু  ইতোমধ্যে হাওরের সিংহভাগ ধান কাটা হয়ে গেছে। এখন সেখানে বন্যার পানি প্রবেশ করলে খুব বেশি ক্ষতি নেই। বরং নদীর পানি আসায় সেখানকার মৎস্যসম্পদের জন্য তা নতুন প্রাণ জোগাবে। পানির ঢল যদি মৌলভীবাজার ও সুনামগঞ্জ শহরে প্রবেশ করে, তাহলেই কেবল কিছুটা জনভোগান্তি তৈরি করবে। তবে এই ঢল দু–তিন দিনের বেশি স্থায়ী হবে না বলে মনে করছে বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্র।

এ ব্যাপারে বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের নির্বাহী প্রকৌশলী আরিফুজ্জামান ভূঁইয়া  বলেন, এবার টানা তিন মাস বৃষ্টি কম হওয়ায় নদ-নদীগুলোর পানি এমনিতেই কম। ফলে আগামী কয়েক দিন যে টানা বৃষ্টি হবে, তাতে নদীর পানি অনেক বেশি বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা কম। হাওরাঞ্চলের কয়েকটি স্থানে বৃষ্টি ও ঢল একসঙ্গে হয়ে বন্যা দেখা দিতে পারে। তবে দেশের উত্তরাঞ্চলে প্রতিবছর যে স্বাভাবিক বন্যা হয়, তা আগামী জুনের আগে হওয়ার আশঙ্কা নেই।

এদিকে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর থেকে বলা হয়েছে, এবার তাপমাত্রা বেশি থাকায় দেশের বেশির ভাগ এলাকায় ধান স্বাভাবিক সময়ের চেয়ে এক সপ্তাহ আগে পেকেছে। আর এখনো তেমনভাবে বৃষ্টি শুরু না হওয়ায় কৃষকেরা দ্রুত ওই ধান কাটতে শুরু করেছেন। অন্যান্য বছর মে মাসে ৪০ শতাংশের বেশি ধান কাটা হয় না। এবার এরই মধ্যে বোরো ধানের ৬৫ শতাংশ কাটা হয়ে গেছে।

তবে দেশের ভেতরে যতটা না বৃষ্টি হতে পারে, দেশের উজানে ভারতীয় অংশে বৃষ্টি বেশি হবে বলে জানিয়েছে সরকারের বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্র।

Sharing is caring!

Related Articles

Back to top button