উত্তরাখণ্ডের জোশিমঠে হিমবাহ ভেঙে তুষার ধ্বস

রবিবার (৭ ফেব্রুয়ারি) ভয়াবহ তুষারধ্বসের কবলে ভারতের উত্তরাখণ্ড। উত্তরাখণ্ডের চামোলি জেলায় জোশিমঠের খুব কাছেই ঋষিগঙ্গা বিদ্যুৎপ্রকল্পে কর্মরত ১৬ শ্রমিক হিমবাহ ভেঙে তুষার ধসে একটি টানেলে আটকে পড়ে, অবশেষে বেঁচে ফিরেছেন। ঋষিগঙ্গা বিদ্যুৎ প্রকল্পের বাকি দেড়শো জনেরও বেশি শ্রমিক নিখোঁজ বলে সংবাদসংস্থা সূত্রে জানা যাচ্ছে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জানায়, চামোলির ওই তুষার ধসের সময় একটি সুড়ঙ্গে কাজ করছিলেন বিদ্যুৎপ্রকল্পের ১৬ জন শ্রমিক। আচমকা সেই সুড়ঙ্গের মুখ বন্ধ হয়ে গেলে কর্মীদের বেঁচে থাকার সম্ভাবনা নিয়ে শঙ্কা তৈরি হয়। তবে উদ্ধারকর্মীদের কয়েক ঘণ্টার চেষ্টায় একে একে ওই ১৬ শ্রমিককে জীবিত উদ্ধার করা হয়। কিন্তু বিদ্যুৎপ্রকল্পের বাকি শ্রমিক অনেকেই এখনো নিখোঁজ। অলকানন্দা নদীতে ঋষিগঙ্গা বাঁধ ব্যাপক ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ধৌলিগঙ্গার বাঁধে ফাটল দেখা গিয়েছে। ধৌলিগঙ্গা নদীর জলস্তর দ্রুত বাড়ছে। নদী তীরবর্তী গ্রামগুলি প্লাবিত হয়েছে বলে সংবাদসংস্থা সূত্রে জানা যাচ্ছে। ধৌলিগঙ্গা এলাকায় রেনি গ্রামে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা করা হচ্ছে। উত্তরাখণ্ডের মুখ্যসচিব ওম প্রকাশ জানিয়েছেন, চামোলি জেলায় ১০০-১৫০ জনের মৃত্যুর আশঙ্কা করা হচ্ছে।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ ঝুঁকিপূর্ণ অঞ্চলের বাসিন্দাদের অন্যত্র সরিয়ে নেওয়ার কার্যক্রম শুরু করেছে। চার জেলায় হাই অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে। উদ্ধারকাজের জন্য শ’খানেক ITBP জওয়ানদের ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়েছে। ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী (NDRF)-ও। ঘটনাস্থলে যান উত্তরাখণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী ত্রিবেন্দ্র সিং রাওয়াত। এছাড়া, নিখোঁজদের সন্ধানে উদ্ধারকাজ অব্যাহত রয়েছে।

Sharing is caring!

Related Articles

Back to top button