Wednesday, 29/1/2020 | : : UTC+6
Green News BD

চট্টগ্রামে জলাবদ্ধতা নিরসনে তিন কোটি ঘনফুট বর্জ্য অপসারণ

চট্টগ্রামে জলাবদ্ধতা নিরসনে তিন কোটি ঘনফুট বর্জ্য অপসারণ

চট্টগ্রাম নগরের জলাবদ্ধতা নিরসনে ৫৬১৬ কোটি টাকা ব্যয়ে ব্যাপক কর্মযজ্ঞ চলছে। চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (সিডিএ) সেনাবাহিনীর মাধ্যমে এই প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে। যা সম্পন্ন হওয়ার কথা রয়েছে ২০২০ সালের মধ্যে। খাল পুনঃখনন, সমপ্রসারণ-সংস্কার, নগরের মাঝ দিয়ে ও নগর সংলগ্ন প্রবাহিত প্রাকৃতিক খাল এবং বিভিন্ন নালা-নর্দমা পরিষ্কার-বর্জ্য অপসারণ জলাবদ্ধতা নিরসন প্রকল্পে অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে গত দেড় বছরে এসব খালে পানির প্রবাহ ঠিক রাখতে প্রায় সাড়ে তিন কোটি ঘনফুট বর্জ্য অপসারণ করা হয়েছে। তবে এলাকাবাসীর অসচেতনতায় খালগুলোর অনেক অংশ আবারও পূর্বের অবস্থায় ফিরে যাচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

গত কয়েকদিনের বৃষ্টিপাত ও জোয়ারের পানিতে জলাবদ্ধতা কবলিত চট্টগ্রামের কমপক্ষে এক-তৃতীয়াংশ এলাকা। অন্য বছরের তুলনায় এবার চট্টগ্রামে পানি দ্রুত নেমে গেলেও জলাবদ্ধতা কবলিত হয়েছে নতুন এলাকা, সেই সঙ্গে পানির উচ্চতাও হচ্ছে বেশি।

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনসহ সংশ্লিষ্টরা বলছেন, নগর জুড়ে অপরিকল্পিত নির্মাণের কারণেই মূলত পানি নিষ্কাশন বাধাপ্রাপ্ত হচ্ছে, যার জন্য দায়ী সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানও। তবে, চট্টগ্রামকে জলাবদ্ধতামুক্ত রাখতে গৃহীত বর্তমান প্রকল্পগুলো সম্পন্ন হলে পরিস্থিতির দ্রুত উন্নতি হবে বলে আশাবাদী সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

নগরের আগ্রাবাদ, হালিশহর, চাদগাঁও, বাকলিয়া ও পাঁচলাইশে চট্টগ্রামের নিচু এলাকা জলাবদ্ধতার চাপ বেশি। এবছর নতুন করে পতেঙ্গাতে জলাবদ্ধতা দেখা দিয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিমানবন্দর সড়কে যান চলাচলে অচলাবস্থা তৈরি করছে। সবমিলিয়ে চট্টগ্রামের প্রায় এক-তৃতীয়াংশ এলাকা সাময়িক জলমগ্ন ছিল। ভারি বৃষ্টির সময় জোয়ার হলে নগরের অধিকাংশ উঁচু সড়কও পানিতে ডুবে যায়। সমুদ্রে ভাটার সময় উঁচু সড়ক থেকে পানি নেমে গেলেও গলি ও লেন থেকে পানি নামতে সময় লাগছে কয়েক দিন পর্যন্ত।

জলবায়ু পরিবর্তনের সবচেয়ে বেশি হুমকিতে থাকা চট্টগ্রামে ড্রেনেজ ব্যবস্থা ঠিক রাখতে প্রকল্পের মধ্যে ৩৬টি খালের ময়লা আবর্জনা অপসারণের পাশাপাশি বিভিন্ন নালা ও ড্রেনের জমে থাকা মাটি ও ময়লা আবর্জনা পরিষ্কার-প্রয়োজনে সংস্কার করা হবে।

সেনাবাহিনীর মাধ্যমে পরিচালিত জলাবদ্ধতা নিরসন প্রকল্পের পরিচালক লে. কর্নেল মোহাম্মদ শাহ আলী জানিয়েছেন, জলবায়ু পরিবর্তনের সবচেয়ে বেশি হুমকিতে থাকা চট্টগ্রামে ড্রেনেজ ব্যবস্থা মূলতঃ ৩৬টি খাল নির্ভর। গত দেড় বছরে এসব খালে পানির প্রবাহ ঠিক রাখতে এই পর্যন্ত প্রায় সাড়ে তিন কোটি ঘনফুট বর্জ্য অপসারণ করা হয়েছে। এই কাজ অব্যাহত থাকবে। তবে, এর মধ্যে এলাকাবাসীর অসচেতনতার কারণে খালগুলোর অনেক অংশ আবারও পূর্বের অবস্থায় ফিরে যাচ্ছে। তার পরও এবার পূর্বের তুলনায় দ্রুত পানি নিষ্কাশন হয়েছে।

প্রকল্প পরিচালক জানান, গত দেড় বছরে প্রকল্পভুক্ত ৩৬টি খালের মধ্যে এই পর্যন্ত বিশটি খালের প্রায় তিরিশ কিলোমিটার দৈর্ঘ্য এলাকার আবর্জনা ও মাটি অপসারণ করা হয়েছে। যার পরিমাণ প্রায় ৯৩ লক্ষ ২৯ হাজার ৪৫৮ সিএফটি। একই সময় জলাবদ্ধতাপ্রবণ নগরের ১৯টি ওয়ার্ডের ৫৪টি ছোট-বড় ড্রেনের ময়লা ও মাটি অপসারণ করা হয়েছে। যার পরিমাণ প্রায় এক কোটি ৬৪ লক্ষ ৩৩ হাজার ২৪৩ সিএফটি।

চট্টগ্রাম নগরকে জলাবদ্ধতামুক্ত করতে এবং স্থায়ীভাবে জলাবদ্ধতামুক্ত রাখতে জলাবদ্ধতা সৃষ্টিকারী যেকোনো প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান প্রকল্প পরিচালক। তিনি বলেন, ‘প্রকল্পের অধীনে অনেক খাল ড্রেন সংস্কার, সমপ্রসারণ করা হবে।’

সিডিএ সূত্রে জানায়, প্রকল্পে ব্যয়ের মধ্যে ৩৬টি খালের মাটি অপসারণ। ৬ হাজার ৫১৬ কাঠা ভূমি উদ্ধার। নতুন ৮৫ দশমিক ৬৮ কিলোমিটার রাস্তা নির্মাণ। ১৭৬ কিলোমিটার আরসিসি রিটেইনিং ওয়াল নির্মাণ। ৪৮টি পিসি গার্ডার ব্রিজ প্রতিস্থাপন। বন্যার পানি সংরক্ষণে ৩টি জলাধার, ৬টি আরসিসি কালভার্ট প্রতিস্থাপন, ৫টি টাইডাল রেগুলেটর, ১২টি পাম্পহাউস স্থাপন, ৪২টি সিল্টট্রেপ স্থাপন, ২০০টি ক্রস ড্রেন কালভার্ট নির্মাণ করা হবে। ১৫ দশমিক ৫০ কিলোমিটার রোড সাইড ড্রেনের সমপ্রসারণ, ২ হাজার বৈদ্যুতিক পুল স্থানান্তর, ৮৮০টি স্ট্রিট লাইট স্থাপন এবং ৯২টি ইউটিলিটি লাইন স্থানান্তরের কথা রয়েছে।

চট্টগ্রাম নগরবাসী দীর্ঘদিনের দুঃখ সামান্য বৃষ্টিতে সৃষ্ট জলাবদ্ধতা দূর করার দীর্ঘ মেয়াদের পরিচালিত জলাবদ্ধতা নিরসনে খাল পুনঃখনন, সমপ্রসারণ, সংস্কার ও উন্নয়ন প্রকল্পের পরামর্শক প্রতিষ্ঠান হিসেবে কাজ করছে সেন্টার ফর এনভায়রনমেন্ট অ্যান্ড জিওগ্রাফিক্যাল ইনফরমেশান সিস্টেম সিইজিআইএস।

Sharing is caring!

Advisory Editor
Kazi Sanowar Ahmed Lavlu
Editor
Nurul Afsar Mazumder Swapan
Sub-Editor
Barnadet Adhikary 
Dhaka office
38 / D / 3, 1st Floor, dillu Road, Magbazar.
Chittagong Office
Flat: 4 D , 5th Floor, Tower Karnafuly, kazir deori.
Phone: 01713311758

পুরানো খবর

জানুয়ারী 2020
শনি রবি সোম বুধ বৃহ. শু.
« ডিসে.    
 123
45678910
11121314151617
18192021222324
25262728293031

ছবি ঘর