Sunday, 17/11/2019 | : : UTC+6
Green News BD

বিশ্বের ১০ দেশে ৩২ হাজার টন আলু রপ্তানি

বিশ্বের ১০ দেশে ৩২ হাজার টন আলু রপ্তানি

কাতার, সিঙ্গাপুর ও মালয়েশিয়ার মতো উন্নত দেশসহ বিশ্বের ১০ দেশে এবার রপ্তানি হয়েছে ৩২ হাজার টনের বেশি আলু। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি আলু রপ্তানি হয়েছে মালয়েশিয়ায়। সিঙ্গাপুর ও শ্রীলংকা রয়েছে মালয়েশিয়ার পরে। চট্টগ্রাম বন্দর হয়ে শুধু সমুদ্র পথেই এসব আলু রপ্তানি হয়েছে সদ্য বিদায়ী অর্থ বছরের (২০১৮-১৯) ৭ মে পর্যন্ত।

আলু রপ্তানি করা দেশগুলো হলো মালেয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর, শ্রীলঙ্কা, আরব আমিরাত, সৌদি আরব, কাতার, বাহরাইন, ব্রুনাই, বেনিন ও ভিয়েতনাম। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর চট্টগ্রাম সমুদ্র বন্দরের উদ্ভিদ সংগনিরোধ কেন্দ্রে প্রয়োজনীয় পরীক্ষা শেষে উল্লেখিত আলু রপ্তানির ব্যবস্থা করা হয়। দেশের রংপুর, লালমনিরহাট, চুয়াডাঙ্গাসহ উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন জেলায় এসব আলুর ফলন হয় বলে জানিয়েছেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর।

চট্টগ্রাম সমুদ্র বন্দরের উদ্ভিদ সংগনিরোধ কেন্দ্র থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী, গত অর্থ বছরের ৭ মে পর্যন্ত দেশ থেকে মোট ৩২ হাজার ১০ দশমিক ১৬২ মেট্রিক টন আলু রপ্তানি করা হয়েছে। এর মধ্যে মালেয়েশিয়ায় ২২ হাজার ৬৭২ দশমিক ৯৩১ মেট্রিক টন, সিঙ্গাপুরে ২ হাজার ৬৮৮ দশমিক ৭০৮ মেট্রিক টন, শ্রীলঙ্কায় ১ হাজার ৮৭০ দশমিক ২৫০ মেট্রিক টন, আরব আমিরাতে ৭০৯ দশমিক ৩২৫ মেট্রিক টন, সৌদি আরবে ৯৪৭ দশমিক ৫০০ মেট্রিক টন, কাতারে ৮২ দশমিক ৫২০ মেট্রিক টন, বাহরাইনে ৫৫ দশমিক ২৫০ মেট্রিক টন, ব্রুনাইয়ে ৮৩ মেট্রিক টন, বেনিনে ৫০ মেট্রিক টন এবং ভিয়েতনামে ৫৩ দশমিক ৬০০ মেট্রিক টন।

এ বিষয়ে চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর উদ্ভিদ সংগনিরোধ কেন্দ্রের রোগতত্ত্ববিদ কৃষিবিদ সৈয়দ মুনিরুল হক জানান, বর্তমানে ১০টি দেশে নিয়মিত আলু রপ্তানি হচ্ছে। আগামীতে আরো কয়েকটি দেশকে যুক্ত করার ব্যাপারে সরকারিভাবে তৎপরতা চলছে। তিনি তথ্য প্রকাশ করে বলেন, ২০১৬-১৭ অর্থবছরে ৪৫ মেট্রিক টন আলু রপ্তানি করা হয়েছিল।

সংশ্লিষ্ট চাষী ও রপ্তানিকারকরা জানান, এবার রপ্তানি কমে যাওয়ার কারণ হিসেবে আলু কোল্ডস্টোরেজে সঠিক তাপমাত্রায় সংরক্ষণ না করতে পারা এবং কৃষকের উৎপাদন খরচের চেয়ে বিক্রয়মূল্য কম পাওয়ায় কৃষক মাঠ থেকে অনেক আলু উত্তোলন করেনি। ফলে অনেক জায়গায় মাঠেই পচে প্রচুর পরিমাণ আলু নষ্ট হয়ে গেছে। বাংলাদেশ সরকারি কৃষি তথ্য সার্ভিস থেকে জানা গেছে, বাংলাদেশ আলু উৎপাদনকারী শীর্ষ দশ দেশের মধ্যে অষ্টম স্থানে। আলু এখন দেশের অন্যতম অর্থকরী ফসলও। মাধ্যম হয়ে উঠেছে বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনেরও। এরই ধারাবাহিকতায় উল্লেখিত ১০ দেশে আলু রপ্তানি হল ৩২ হাজার ১০ দশমিক ১৬২ মেট্‌্িরক টন।

কৃষিবিদ সৈয়দ মুনিরুল হক জানান, উদ্ভিদ বা উদ্ভিদজাত পণ্য আমদানি অনুমতির ওপর ভিত্তি করে ‘আমদানি ছাড়পত্র’ এবং রফতানির জন্য ‘উদ্ভিদ স্বাস্থ্য প্রমাণপত্র’ ইস্যুর মাধ্যমে আমদানি ও রফতানি কার্যক্রম সম্পন্ন করা হয়। বর্তমানে বাংলাদেশে মোট দুইটি সমুদ্র বন্দর, তিনটি বিমানবন্দর, ২৪টি স্থলবন্দর, একটি নৌবন্দর ও কমলাপুরের আইসিডি’র মাধ্যমে আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে। তবে সরকার বাণিজ্য সমপ্রসারণে বাংলাদেশ ভারতের সীমান্তবর্তী এলাকায় আরও কয়েকটি কোয়ারেন্টাইন স্টেশন স্থাপনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করার কথাও জানান এ কৃষিবিদ।

Sharing is caring!

Advisory Editor
Kazi Sanowar Ahmed Lavlu
Editor
Nurul Afsar Mazumder Swapan
Sub-Editor
Barnadet Adhikary 
Dhaka office
38 / D / 3, 1st Floor, dillu Road, Magbazar.
Chittagong Office
Flat: 4 D , 5th Floor, Tower Karnafuly, kazir deori.
Phone: 01713311758

পুরানো খবর

নভেম্বর 2019
শনি রবি সোম বুধ বৃহ. শু.
« অক্টো.    
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
30  

ছবি ঘর